চীনে ভুল করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ‘আসল’ তথ্য ফাঁস

বিশ্বজুড়ে এখন এক আতঙ্কের নাম চীনের প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাস। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ৫৬৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। তবে মৃতের সংখ্যা কি আসলেও ৫৬৪? এরই মধ্যে এমন অভিযোগ সামনে এসেছে যেখানে বলা হচ্ছে চীন আসলে মৃতের প্রকৃত সংখ্যা জানতে দিচ্ছে না। সে তত্ত্বে যারা বিশ্বাস করতে শুরু করেছিলেন তাদের জন্য আরও জোরালো প্রমাণ এনে দিল খোদ চীনেরই একটি প্রতিষ্ঠান।

টেনসেন্ট হলো চীনের দ্বিতীয় বৃহত্তম কোম্পানি। প্রতিষ্ঠানটি হয়তো ভুলবশত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কতজন মারা গেছেন তার প্রকৃত সংখ্যা প্রকাশ করে দিয়েছে। কারণ শনিবার প্রতিষ্ঠানটি তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এপিডেমিক সিচুয়েশন ট্যাকারে প্রথম যে তথ্য প্রকাশ করে সেখানে দেখা যাচ্ছে চীনের প্রকাশিত তথ্যের চেয়ে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা অনেক বেশি।

ওই লেখাতে প্রথমে বলা হয়েছিল এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এ পর্যন্ত ২৪ হাজার ৫৮৯ মানুষের প্রাণ গেছে। আর এতে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৫৪ হাজার ২৩ জন। এসব সংখ্যা চীনের প্রকাশিত সংখ্যার চেয়ে অনেক বেশি। তবে প্রকাশের অল্প কিছু সময়ের মধ্যেই লেখাটি আপডেট করা হয়। আপডেটের পরে দেখা যায় চীনা সরকারের দেয়া সংখ্যা আর তাদের সংখ্যাই কোনো পার্থক্য নেই। তাইওয়ান নিউজের প্রতিবেদনে বিষয়টি জানানো হয়েছে।

এর আগে এমন খবরও রটেছিল যে ভাইরাসে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৯ হাজার ৮০৮। তখন চীন বলছিল যতজন আক্রান্ত সেটা ওই সংখ্যার চেয়ে চারগুণ বেশি। এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এখন পর্যন্ত যতজনের মৃত্যু হয়েছে এর বেশিরভাগেরই বাস ছিল উহান ও এর আশপাশে। তবে রাজধানী বেইজিংসহ অন্যান্য অঞ্চলেও মৃত্যুর সংবাদ পাওয়া গেছে। এছাড়া করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর পর সে সংখ্যা রেকর্ডে না নিয়েই মরদেহ পুড়িয়ে ফেলা হচ্ছে বলেও খবর রটেছিল।

এছাড়া কিছু ভিডিওতে দেখা গেছে যেখানে বলা হচ্ছে উহানের হাসপাতালে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছে মরদেহ। আর এই ভিডিওগুলো করেছেন উহানের হাসপাতাল স্টাফরা। সূত্র: ডেইলি মেইল